"> ভালো অভিভাবক হতে করণীয় - Dailyajkersangbad ভালো অভিভাবক হতে করণীয় – Dailyajkersangbad

শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন

ভালো অভিভাবক হতে করণীয়

লাইফস্টাইল ডেস্ক : ‘শাসন তাকেই মানায়, সোহাগ করে যে’ কথাটা মানেন তো। আর সন্তান তখনই সেরা হয়, যখন মা-বাবার আচরণ কঠোর-কোমলের মিশ্রণ ঘটে। আপনি কি সব সময় বাচ্চার সঙ্গে এমন ব্যবহার করেন? উত্তরে আপনি বলবেন, সব সময় পরিস্থিতি বা পরিবেশ তো আপনার বশে থাকে না।

তাছাড়া, কাজের চাপ, টেনশন তো আছেই। তাই অকারণেই হয়তো অনেক সময় বেশি শাসন করে ফেলেন বাড়ির খুদে সদস্যটিকে। পরে তার কাঁদো কাঁদো মুখ মন ভার করে দেয় আপনার। এমনটা কঠোর অভিভাবক যদি সত্যিই হতে না চান তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ মানতে হবে। বাচ্চার এক বছর বয়সে থেকেই তাকে নিয়ে বই পড়লে ওর তিন বছর বয়সে খুব ভালো অভিভাবক হবেন আপনি। তিন বছর বয়স থেকে এই অভ্যাস করলে ফল পাবেন বাচ্চার পাঁচ বছরে।

চিকিৎসাবিজ্ঞান বলছে, যে মা বা বাবা ছোট থেকেই বাচ্চাকে কোলের কাছে নিয়ে বসে গল্পের বই পড়েন বা বই পড়ানোর অভ্যেস করেন তিনি কিন্তু ভবিষ্যতে সন্তানের খুব কাছের একজন হয়ে ওঠেন।আর এতে দুরন্তপণাও অনেক কমে বাচ্চার। আপনাকে কাছে পেয়ে খুশি থাকে তার মনও। এবিষয়ে একমত জার্নাল অব ডেভেলপমেন্টাল অ্যান্ড বিহাইভালিয়াল পেডিয়াট্রিক্সও। তাদের সমীক্ষা বলছে, বাচ্চা পড়তে পারুক চাই না পারুক, মা-বাবার সঙ্গে বই পড়ার ছুতোতে আসলে সে অনেকটা সময় কাছে পায় মা-বাবাকে। আর এভাবেই গড়ে ওঠে মা-বাবা-সন্তানের মধ্যে চিরকালের অবিচ্ছেদ্য বন্ধন।

শুধু যে নিয়ম করে বাচ্চাকে নিয়ে পড়তে বসালে সন্তান লেখাপড়ায় ভালো হবে তাই নয়, স্কুলে ভর্তি হওয়ার পরে অন্য সহপাঠীদের লেখাপড়ার ক্ষেত্রে সাহায়্য করতে পারবে সহজেই। এমনচাই জানিয়েছেন টর্গাস বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি অধ্যাপক ও গবেষক ম্যানুয়েল জিমিঞ্জে। এছাড়া মা বাবারা  সন্তানের জীবনে সেরা শিক্ষক হয়ে উঠতে পারেন। সেটাকে কীভাবে?

ম্যানুয়েল জিমিঞ্জের দাবি, মা-বাবা যদি এই ব্যপারগুলো মেনে চলতে পারেন তাহলে ভবিষ্যতে তাঁরা সন্তানের খুব কাছের একজন হয়ে উঠতে পারবেন। শিখতে পারবেন, কীভাবে ভালো অভিভাবক হওয়া যায়। এই গবেষণা বাস্তবে কতটা সত্যি জানতে, গবেষকের একটি দল আমেরিকার ২০টি বড়ো শহরের প্রায় দু-হাজারেরও বেশি মায়ের কাছে জানতে চেয়েছিলেন, তাঁরা কতটা, সময় বাচ্চাকে নিয়ে বই পড়তে বসেন। বা আদৌ বসেন কিনা।

দুবছর পরে তাঁদের কাছে আবার জানতে চাওয়া হয়, সন্তানকে মানুষ করতে গিয়ে বাচ্চার ওপর  তাঁরা কতটা শারীরিক এবং মানসিকভাবে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন। সমীক্ষা বলছে, বাচ্চার এক বছর বয়সে থেকেই তাকে নিয়ে বই পড়লে ওর তিন বছর বয়সে খুব ভালো অভিভাবক হবেন আপনি। তিন বছর বয়স থেকে এই অভ্যাস করলে ফল পাবেন বাচ্চার  পাঁচ বছরে। অর্থাৎ, আর পাঁচজন মা বা বাবার মতো ততটাও কঠোর হবেন না আপনি। তাই যেসব মা ছোটো থেকেই বাচ্চাকে নিয়ে একসঙ্গে পড়তে বসেন, মায়ের সাহচর্যে সেই সব সন্তান অনেক নম্র, শান্ত হয়। আর মা-বাবাও সন্তানের সঙ্গে কঠোর-কোমলের মিশ্রণে আচরণ করেন।

অন্যান্য খবর

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com