শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:০৩ পূর্বাহ্ন

সিনেটে বাইডেনের ১.৯ ট্রিলিয়ন ডলারের করোনা প্যাকেজ পাস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১
  • ৫৪ পাঠক পড়েছে

প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের এক সপ্তাহ আগেই বিশাল অঙ্কের এই প্রণোদনা প্যাকেজের পরিকল্পনা জানান তিনি
যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ১.৯ ট্রিলিয়ন ডলারের করোনা তহবিল কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটেও পাস হয়েছে। তবে শনিবার পাস হওয়া বিলটি নিয়ে রিপাবলিকান দলের সিনেটরদের প্রত্যেকেই বিরোধিতা করেন। এ খবর বিবিসির।

প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের এক সপ্তাহ আগেই বিশাল অঙ্কের এই প্রণোদনা প্যাকেজের পরিকল্পনা জানান বাইডেন। এরপর গত ২৭ ফেব্রুয়ারি করোনা তহবিলের অনুমোদন দেয় কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ।

ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদ মনে করছে আগামী মঙ্গলবার বিলটি অনুমোদন পাবে।

বিল পাস হওয়ার পর বাইডেন একে ‘অগ্রগতির আরেকটি বড় পদক্ষেপ’ হিসেবে উল্লেখ করেন। এ সময় তিনি আবারও দেশবাসীর জন্য কাজ করার প্রতিজ্ঞা করেন।

তিনি বলেন, সিনেট যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক দৈন্যের সময়ে তার ১.৯ ট্রিলিয়ন ডলার সহায়তা প্যাকেজ অনুমোদন করে করোনা সংকটকালে এক বৃহৎ সেবার নজির রাখলো।

আরও বলেন, ৪৫ দিন আগে জনগণের কাছে তাদের দুঃসময়ে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম, আজ তা বাস্তবে রূপ নিলো। ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস ও অন্যান্য সিনেটরদের অক্লান্ত পরিশ্রমের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। বিশেষ করে সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা চাক শুমারের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

এই সহায়তা প্যাকেজ ভ্যাকসিন উৎপাদন ও বিতরণে সহায়ক হবে, কারখানা ও ক্ষুদ্র প্রতিষ্ঠানগুলো আবার চালু হবে। ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহে কেন্দ্রীয় সরকার বেকার ভাতাস্বরূপ ৩০০ ডলার দেবে এবং জনপ্রতি করদাতা ১৪০০ ডলারের একটি চেক পাবেন। যারা যৌথভাবে কর দেন তারা ২৮০০ ডলার এবং প্রতিটি নির্ভরশীল শিশু পাবে ১৪০০ ডলার।

শনিবার দীর্ঘ ২৭ ঘণ্টার অধিবেশন চলে বিলটির ওপর। ভোটাভুটিতে বিলের পক্ষে ৫০টি আর বিপক্ষে পড়ে ৪৯টি ভোট। রিপাবলিকান সিনেটরদের প্রত্যেকেই এই বিলের বিরোধিতা করেন।

রিপাবলিকানদের মতে, বিশাল এই ত্রাণ তহবিল অপ্রয়োজনীয় এবং করোনা মহামারির সঙ্গে এটি সম্পৃক্ত নয়। তবে এই বিলে ডেমোক্র্যাটদের বিভিন্ন বিষয়কে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে বলে এর আগে দাবি করেন বেশ কয়েকজন রিপাবলিকান সদস্য।

ডেমোক্র্যাটদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ভ্যাকসিন কার্যক্রম এবং করোনা পরীক্ষাকে আরও গতিশীল এবং অর্থনীতিকে স্থিতিশীল করতেই এই প্রণোদনা প্যাকেজের পরিকল্পনা করা হয়েছে। ত্রাণ প্যাকেজের আওতায় করোনা মোকাবিলায় খরচ করা হবে ৪১২ বিলিয়ন ডলার আর ছোট ব্যবসার ক্ষেত্রে থাকছে ৪৪০ বিলিয়ন ডলার।

এই বিলের ফলে সাড়ে ৮ কোটি মার্কিন নাগরিক উপকৃত হবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করে আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © 2019-2020 । দৈনিক আজকের সংবাদ
Design and Developed by ThemesBazar.Com
SheraWeb.Com_2580